রক্ত দেয়ার পর কি খাওয়া উচিত

রক্ত দেয়ার পর কি খাওয়া উচিত আর কি করা উচিৎ তা জানবো আজকে আমরা আমাদের এই পোস্টে। রক্তদান অনেক বড় মহান একটি কাজ। রক্তদানের ফলে শরিরের কোন ক্ষতি হয় নাহ। বরং আরো উপকার হয়। আপনি রক্ত না দিলেও ১২০ দিন পর পুতারন লোহিত কনিকা মরে যাই এবং নতুন লোহিত কনিনা তৈরি হয়। তাই রক্ত দান কোনরূপ ক্ষতি নেই।

এখন জানা যাক রক্ত দানের পর কি কি খাবার গ্রহণ করা উচিৎ। রক্ত দানের পর নয়। রক্ত দানের আগে এবং ঐ সময় থেকেই পানি খেতে হবে অল্প অল্প করে। এই সময় নতুনদের ভয়ে গলা শুকায়ে যাই। যেটা একটা এক্সিডেন্টের কারণ হতে পারে। তাই পানি পান করুণ রক্ত দানের সময়। আর চাইলে পানির সাথে একটা টেস্টি স্যালাইন ও গ্লোকোজ মিশাতে পারেন। এতে করে বার বার পানি খেতে কোন বিরক্ত লাগবে নাহ। 

এর পর রক্ত দেওয়া হয়ে গেলে চুপ করে কিছুটা সময় শুয়ে বা হেলান দিয়ে বসে থাকবেন। রক্ত দেওয়ার পর আপনার মনে হতে পারে আপনি পুরা ঠিক আছেন। দৌড়াদৌড়ি করতে পারবেন বা সিড়ি দিয়ে দ্রুত নেমে যেতে পারবেন। কিন্তু ভুলেও এমনটা করতে যাবেন নাহ। এমন সময় অনেক আস্তে ধিরে চলাফিরা করবেন ও সাথে একটা মানুষ রেখে দিবেন। কারণ এমন সময় হুট করেই মাথা ঘুরে যাই ও আপনি পড়ে যাবেন। যেটা আপনি কোন ভাবেই টের পাবেন নাহ আগে থেকে। 

রক্ত দানের পর যেকোন ফলের জুস খেতে পারেন। আবার বাজার থেকে ফ্লেবার দেওয়া জুস খেয়েন নাহ। অরজিনাল খাটি জুস না পেলে শুধু ফল চিবিয়ে খান। রক্ত দেওয়া হয়ে গেলে বাড়ি এসে ১-২ ঘন্টা রেস্ট নিন। এবং ঐ দিন এবং তার পরের দিন ভারি কোন কাজ করতে যাবেন নাহ। তাহলে উপকারের বদলে আরো অপকার হয়ে যাবে। 

আরো একটি বিষয় জানা উচিৎ, রক্ত দানের পূর্বে ও পরে শারিরীক মিলন থেকে বিরত থাকা উচিৎ। এতে করে শরীর অনেক দূর্বল হয়ে যাই ও শরীর রিকোভার হতে আরো অনেক সময় নেই। 

রক্ত দেয়ার পর কি খাওয়া উচিত তা যদি জানতে চান তাহলে আমি বলবো, সুষম খাবার খান। দুধ, ডিম, ফল-মূল, শাক-সবজি। আয়রন আছে এমন সব খাবার গ্রহন করুন রক্তদানের পর। কিন্তু এতোটা সিরিয়াস হবারও কিছু নাই। আপনি রক্ত দানের পর এগুলা না খেলেও কোন সমস্যা নেই। এই গুলা এমনিতেই আপনার শরীর আপনার খাবার থেকে তার প্রয়োজন মতো গ্রহন করে নিবে। 

 

আরো পড়ুনঃ কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করার উপায়

 

রক্ত দেওয়ার পর করণীয়

  • রক্তদানের পর পানি পান করুন অল্প অল্প করে।
  • রক্তদানের পরে দিনও পানি খান সাধারনের থেকে একটু বেশি। 
  • রক্তদানের পর পর একটু বিশ্রাম নিতে ৫-২০ মিনিট। 
  • রক্তদানের পর ভারি কাজ করবেন নাহ।
  • রক্তদানের পর ছুটাছুটি করবেন নাহ।
  • রক্তদানের পর বাইক বা অন্য কোন গাড়ি চালাবেন নাহ। 
  • রক্তদানের পর শরীর খুব বাজেভাবে খারাপ লাগলে ডাক্তারের কাছে যেতে হবে। 
  • গর্ভবতী মায়ের রক্ত দেওয়া যাবে নাহ। 
  • রক্ত দেওয়ার পর একটু ভাল খাবার গ্রহন করুনঃ ফল, দুধ, জুস ইদ্যাতি।

 

রক্ত দিলে কি কি ক্ষতি হয়

  • রক্ত দান করলে অনেক সময় শরীর দূর্বল দেখা দিতে পারে।
  • ছোট বা বয়স্ক মানুষ রক্ত দিলে অবশ্যই দুর্বলতার স্বীকার হবে। 
  • রক্ত দিলে কিছু সময় একটু বাধা বিধি মেনে চলতে হয়। 
  • রক্ত দিলে সুষম খাবার গ্রহনে কিছুটা অর্থ ব্যয় হতে পারে। 

 

রক্ত দানের উপকারিতা

  • রক্তদান করলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমাতা বেড়ে যাই।
  • রক্তদানের সময় ফ্রীতেই আপনার শরীরের বিভিন্ন রোগ আছে কিনা তা পরীক্ষা করা হয়ে যাই। 
  • বিশেষজ্ঞদের মতে রক্তদানের ফলে ক্যান্সারের ঝুকি কমে যাই। 
  • রক্তদান শরীরের ওজন কমাতে সাহায্য করে। 
  • শরীর হালকা লাগে ও ফুরফুরে মন মেজাজ হয়।
  • রক্তদানের ফলে অনেক নেকি লাভ করা যাই।
  • রক্তদান করে মানুষের পাশে দাঁড়ানো যাই ও মহৎ একটি কাজ করা হয়। 

 

সব মিলিয়ে রক্ত দান আমাদের অপকারের চেয়ে শতকোটি গুণ উপকার করে। আর সবচেয়ে বড় কথা রক্তদানের মাধ্যমে মানুষের পাশে দাঁড়ানো যাই। বিপদে মানুষের পাশে দাড়ালে মানুষও আপনার পাশে দাঁড়াবে এটাই সাভাবিক। আসুন আমরা বিনামূল্যে মানুষকে রক্তদান করে মানব সেবায় নিয়োজিত হয়। আমাদের আর্টিকেল গুলা ভাল লাগলে আপনার বন্ধু বান্ধবদের কাছে শেয়ার করবেন।

Leave a Comment