চিনি দিয়ে চুল সিল্কি করার উপায়

চুল হচ্ছে সৌন্দর্যের অন্যতম একটি জিনিস। চুল আমাদের সৌন্দর্য কে আরো বাড়িয়ে দেয়। আর এই চুল  যদি সুন্দর এবং সিল্কি হয় তাহলে তো কথাই নেই। তাহলে আমাদের সৌন্দর্যটা অনেক বেড়ে যায়। চুল সবার সিল্কি হয় না। চুলকে সিল্কি করতে হয়। তাই আজকে এমন একটি উপায়ের কথা বলবো যে উপায়ে আপনি ঘরে বসে কোনো পাশ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়া চুলকে সিল্কি ,কালো এবং গ্লো করতে পারবেন। এই উপায়ে আপনি আপনার চুলকে খুব সুন্দরভাবে সিল্কি এবং কালো করতে পারবেন। আজকে চিনি দিয়ে চুল সিল্কি করার উপায়ের কথা বলবো। চলুন দেখে নেয়া যাক এর উপকারিতা অপকারিতা কি কি?

 

কিভাবে চিনি দিয়ে চুলকে সিল্কি করবো ?

চুলকে ঘন কালো ,সিল্কি ও উজ্জ্বল করতে সবাই চেষ্টা করে যাচ্ছে। আর একারণে অনেকে চুলে বিভিন্ন প্রসাধনী ব্যবহার করে। এজন্য অনেক সময় চুলে সমস্যার সৃষ্টি হয়। তবে চুলে যদি একটি উপায়ে চিনি ব্যবহার করেন তবে কোনো সমস্যা ছাড়াই চুল আরো সিল্কি এবং আরো উজ্জ্বল হয়ে উঠবে। শ্যাম্পুর সাথে চিনি মিশিয়ে চুলে দিয়ে চুলকে উজ্জ্বল এবং সিল্কি করতে পারবেন। 

আপনি আপনার পছন্দের শ্যাম্পু বেঁচে নেন এবার এই শ্যাম্পুতে এক চামুচের মতো চিনি মিশিয়ে নেন। আপনার চুল অনুযায়ী শ্যাম্পু নিবেন এবং শ্যাম্পুর পরিমাণ অনুযায়ী চিনি নিবেন। এরপর চিনিকে শ্যাম্পুর সাথে ভালোভাবে মিশাবেন।  তারপর চুলে ভালোভাবে লাগান। এভাবেই সপ্তাহে ২-৩ বার দিতে থাকেন দেখবেন কিছু দিনের ভিতর আপনি সুফল পেয়ে যাবেন। 

 

চুলে চিনি ব্যবহার করলে কি কি সুফল পাওয়া যাবে ?

  • চুলে শ্যাম্পু ব্যবহার করলে অনেক সময় দেখা যায় চুলে উজ্জ্বলতা আসে না। আপনি যদি শ্যাম্পুর সাথে চিনি ব্যবহার করেন তাহলে চুলে স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা ফিরে আসবে। 
  • চুলে খুশকির সমস্যা কমাতে চিনি খুব  উপকারী। নিয়মিত শ্যাম্পুর সাথে চিনি মিশিয়ে চুলে লাগালে চুলের খুশকি চলে যাবে। 
  • ঘন চুলের শখ কিন্তু সবার। কিন্তু বেশিরভাগ মানুষেরই চুল ঝরে পাতলা হয়ে যায়। তবে শ্যাম্পুর সাথে চিনি মিশিয়ে যদি চুলে লাগানো হয় তবে চুল ঝরে না। চুল ঘন থাকে। 
  • অনেকেরই চুলে শ্যাম্পু করার পর চুল শুষ্ক হয়ে যায়। কিন্তু শ্যাম্পুর সাথে চিনি মেশালে চুল  আর্দ্র হয়ে যাবে। চুল আর শুষ্ক হবে না। 
  • শ্যাম্পুর সাথে চিনি মিশায়ে  চুলে লাগালে চুল সিল্কি হয় এবং চুলের ময়েশ্চারাইজার ফিরে আসে। 

 

 

চুলকে সিল্কি ,ঘন এবং চুলের উজ্জ্বলতা বাড়াতে চুলে কি ব্যবহার করা উচিৎ ?

এখন সপ্তাহে ২-৩ বার শ্যাম্পু করাটা খুব একটা বড় ব্যপার নয়, এখন সবাই সপ্তাহে  ২-৩ বার শ্যাম্পু ব্যবহার করে থাকে। ঘাম, ধুলো ইত্যাদি নানা কারণে চুল মোটামুটি তিন দিনের মধ্যেই চিটচিটে হয়ে যায়,এবং ময়লা হয়ে যায়। কিন্তু শুধু শ্যাম্পুতে কি চুল পরিষ্কার হচ্ছে না? তাহলে তার সঙ্গে চিনি মিশিয়ে নিতে পারেন। এতে চুল খুব ভালোভাবে  পরিষ্কার হয়। শ্যাম্পু করার পরে চুল যতটা নরম এবং উজ্জ্বল হয়, তার সঙ্গে চিনি মেশালে কাজ বেশি হয় । চিনি চুলে ব্যবহারের জন্য খুব ভালো এবং খুব উপকারী  একটি উপাদান। চিকিৎসকরা বলছেন, শ্যাম্পু করার সময় যদি তার সঙ্গে চিনি মিশিয়ে ব্যবহার করে সেটি চুলে লাগালে , চুলের ঘনত্ব বাড়ে , চুল পরিষ্কার হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মজবুতও হয় এবং চুলের উজ্জ্বলতা বাড়ে চুল সিল্কি হয়।  এখন কম বেশি সবারই চুল ঝরা , চুল পাতলা হয়ে যাওয়া, চুলের বৃদ্ধি কমে যাওয়া,চুল শুষ্ক হয়ে যাওয়া ,চুলে খুশকি হওয়ার সমস্যায় ভোগেন। এই নিয়ে চিকিৎসকরা  বিভিন্ন পরীক্ষা করেছেন। এক বিশেষজ্ঞ বলেছেন, শ্যাম্পুর সঙ্গে চিনি মিশিয়ে ব্যবহার করলে খুশকির থেকেও দ্রুত মুক্তি পাওয়া যায়।  

চুল ছাড়াও রূপচর্চায় চিনির  অনেক ধরনের ব্যবহারও রয়েছে। নিয়মিত মুখে চিনি মাখলে ডার্ক সার্কেল, ব্রণ, কালো দাগ দূর হয়,মুখের উজ্জ্বলতা ফিরে  আসে ,মুখ গ্লো হয় । তবে ত্বকে চিনি ব্যবহারের সময়ে সাবধান হতে বলেন বিশেষজ্ঞরা। কারণ ত্বক কেটে যেতে পারে চিনি ব্যবহারের ফলে। 

 

চিনি কি চুলের জন্য ভালো?

চিনি চুলের জন্য খুব উপকারী একটি উপাদান। বিভিন্ন ধরনের প্রসাধনী চুলের অনেক ধরনের ক্ষতি করতে পারে এবং অনেক পাশ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়। কিন্তু চুলে চিনি ব্যবহার করলে এর কোনো পাশ্বপ্রতিক্রিয়া হয় না। প্রসাধনী জিনিস চুলের গোড়া সহ চুলের বিভিন্ন সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। কিন্তু চুলে পরিমানমত  চিনি ব্যবহার করলে এ ধরনের কোনো সমস্যা সৃষ্টি হবে না বরং চুলের আরো উপকার হবে।   চিকিৎসকরা বলছেন, শ্যাম্পুর সঙ্গে চিনি মিশিয়ে যদি চুলে লাগানো হয় তাহলে, চুলের ঘনত্ব বাড়ে , চুলের উজ্জ্বলতা বাড়ে এবং চুল আরো মজবুত হয়। শ্যাম্পুর সাথে চিনি মিশিয়ে চুলে লাগালে চুল সিল্কি হয়। 

 

আরো পড়ুনঃ প্রেসার হাই হলে কি খেতে হবে

চিনি চুলের জন্য কি ক্ষতিকর?

চিনি আমাদের পুরো শরীরের জন্য ক্ষতিকর। মাত্রা অতিরিক্ত চিনি খেলে যেমন আমাদের শরীরের ক্ষতি হতে পারে তেমনই মাত্রা অতিরিক্ত চিনি চুলে দিলে চুলের সমস্যা হতে পারে। চুলে অতিরিক্ত চিনি দিলে এটি শুধু চুলে নয় পুরো শরীরে সমস্যা হতে পারে। গবেষণা করে দেখা গেছে ,মাত্রাতিরিক্ত চিনি ডায়াবেটিস ও স্থুলতায় প্রভাব ফেলতে পারে এবং অতিরিক্ত চিনি দিলে চুল ঝরে পরতে পারে। তাই চুলে অতিরিক্ত চিনি দেয়া যাবে না। 

 

কত দিন পর পর চুলে চিনি দিয়ে শ্যাম্পু করা উচিত?

চুলে অতিরিক্ত শ্যাম্পু ব্যবহার চুলের ক্ষতি করতে পারে। আবার চুলে অল্প শ্যাম্পু দিলেও চুল সুন্দর এবং সিল্কি হবে না। তাই  বিশেষজ্ঞদের মতে, সপ্তাহে অন্তত পক্ষে ৩ বার শ্যাম্পু করা উচিত। আমরা যখন বাইরে বের হয় আমাদের চুলে নানা রকম ধুলা বালি পড়ে ,সপ্তায় যদি তিনবার শ্যাম্পু করা হয় তাহলে সে  ধুলাবালি গুলো  কোনো সমস্যা সৃষ্টি করবে না। যদি ৩ বারের চেয়ে কম ব্যবহার করা হয় তাহলে এই ধুলা বালিগুলি আমাদের চুলের গোড়াকে দুর্বল করতে পারে এবং চুলে খুশকিসহ নানারকম সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। মাথার ত্বকে উপস্থিত তেল, ময়লা এবং রাসায়নিক সমৃদ্ধ জিনিস দূর করতে সাপ্তাহে ৩ বার শ্যাম্পু করুন।  চুলের স্বাস্থ্য ভাল রাখতে প্রথমে মাথার ত্বক পরিষ্কার রাখা খুবই জরুরি।আর এই মাথার ত্বক ভালো রাখতে একদিন অন্তর অন্তর শ্যাম্পু করুন।

 

চুলকে সিল্কি করতে শ্যাম্পুর সাথে কি ব্যবহার করবো?

চুল সিল্কি করার জন্য শ্যাম্পু করার সময় শ্যাম্পুতে চিনি মিশিয়ে লাগাতে পারেন। শ্যাম্পুর সাথে চিনি মিশিয়ে চুলে লাগালে চুল সিল্কি ,চুলের গোড়া মুজবুদ এবং চুলের উজ্জ্বলতা বাড়ে। শুধু শ্যাম্পু ব্যবহার করলে চুল সিল্কি হতেও পারে আবার নাও হতে পারে তবে শ্যাম্পুর সাথে চিনি মিশালে চুল সিল্কি এবং ঘন হয়। তাই চুলকে সিল্কি করার জন্য শ্যাম্পুর সাথে চিনি দিয়ে চুলে লাগান। 

 

চুলে শ্যাম্পু ব্যবহারের অপকারিতা কি ?

সব জিনিসরই উপকারিতা এবং অপকারিতা  দুইটিই থাকে তেমনই চুলে শ্যাম্পু ব্যবহারেরও উপকারিতা এবং অপকারিতা দুইটিই আছে। তবে এর উপকারিতার চেয়ে অপকারিতা কম। শ্যাম্পুতে মাত্রা অতিরিক্ত চিনি দিলে চুলের জন্য সমস্যা হতে পারে এবং বেশি পরিমানে এটি ব্যবহার করলে সমস্যা হতে পারে। বেশি পরিমানে চিনি ব্যবহার করলে চুল পড়া থেকে শুরু করে চুলের বিভিন্ন সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। বেশি পরিমানে চিনি ব্যবহার করলে শুধু চুল নয় শরীরেরও ক্ষতি হতে পারে। তবে যদি পরিমান মত চিনি ব্যবহার করলে কোনো রকম ক্ষতি হবে না। তাই চুলে পরিমানমত চিনি ব্যবহার করবেন ,এবং বেশিবার ব্যবহার করবেন না।  

Leave a Comment